দেশের বাড়ল করোনার দৈনিক মৃত্যু, ওমিক্রন বেড়ে ৫৭৮

This News is Presented by Shyam Sundar Jewellers

দেশের বাড়ল করোনার দৈনিক মৃত্যু। সংক্রমণ কিছুটা কমলেও তা সাড়ে ৬ হাজারের ওপরেই রয়েছে। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক(Union Health Ministry)-র তথ্য অনুযায়ী, বর্তমানে দেশে ওমিক্রন আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫৭৮-এ। গতকালই এই সংখ্যাটি ছিল ৪২২। অর্থাৎ একদিনেই ৩৭ শতাংশ বেড়েছে ওমিক্রন সংক্রমণ।
সবচেয়ে বেশি ওমিক্রন সংক্রমণের খবর মিলেছে দিল্লিতে৷ তারপরেই রয়েছে মহারাষ্ট্র৷  হিমাচলপ্রদেশ ও মধ্যপ্রদেশেও এবার ওমিক্রন থাবা বসিয়েছে। মধ্যপ্রদেশে একদিনেই ৯টি ওমিক্রন কেস শনাক্ত হয়েছে। এদিকে দিল্লিতে একদিনে ৬৩ এবং মহারাষ্ট্রে একদিনে ৩৩টি ওমিক্রন কেস ধরা পড়েছে। এর জেরে সর্বোচ্চ ওমিক্রন সংক্রমণের তালিকায় মহারাষ্ট্রকে পিছনে ফেলল দিল্লি।

ওমিক্রন সংক্রমণ বাড়লেও, দেশে করোনা সংক্রমণ (COVID-19) কিছুটা হলেও কমেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৬৫৩১ জন, যা রবিবারের তুলনায় ৬.৫ শতাংশ কম। বর্তমানে দেশে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ৭৫ হাজার ৮৪১। দেশের মোট আক্রান্তের তুলনায় সক্রিয় রোগীর সংখ্যা এক শতাংশেরও কম, যা ২০২০ সালের মার্চ মাসের পর সর্বনিম্ন হার। বর্তমানে দেশে সুস্থতার হার ৯৮.৪০ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৩১৫ জনের। গতকাল দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যা ছিল ১৬২।  মৃত্যুহার বেড়েছে অনেকটাই। রবিবারের তুলনায় সোমবার অনেকটাই বেড়েছে আক্রান্তের সংখ্যা।

This news is sponsored by STP Tax Consultant

অন্যদিকে, দেশে দ্রুত ছড়াচ্ছে ওমিক্রন। লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। তবে এর মধ্য়েই বড় ঘোষণা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর। তিনি জানিয়ে দিয়েছেন, আগামী ৩ জানুয়ারি থেকে ১৫-১৮ বছর বয়সীদের ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। পাশাপাশি, ৬০ বছরের বেশি বয়সীরাও পাবেন ‘প্রিকশন ডোজ’। দেশের ৯০ শতাংশ মানুষের ভ্যাকসিন হয়ে গিয়েছে। এরই সাপেক্ষে রাজ্যে স্কুলও খুলেছে। ফলে প্রধানমন্ত্রীর এই ঘোষণাকে স্বাগত জানিয়েছেন অভিভাবকেরা। স্বাগত জানিয়েছেন চিকিৎসক ও স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞেরাও।

চিকিৎসকদের দাবি, উৎসব ও বিয়েবাড়ির মরশুমে সাধারণ মানুষের অসচেতনতাই বিপদ বাড়াচ্ছে। ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের থেকেও তিনগুণ বেশি সংক্রামক ওমিক্রন, এই পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষকে আরও সচেতন থাকা উচিত। কিন্তু উৎসবের আনন্দে শিকেয় উঠেছে করোনাবিধি।

ইতিমধ্যেই সংক্রমণ রুখতে একাধিক রাজ্যে জারি হয়েছে নৈশ কার্ফু(Night Curfew)। গত সপ্তাহ থেকেই উত্তর প্রদেশে নৈশ কার্ফু চালু হয়েছে। মহারাষ্ট্রেও জারি করা হয়েছে একাধিক বিধিনিষেধ। ২৬ ডিসেম্বর থেকে অসমেও নৈশ কার্ফু সহ একাধিক করোনাবিধি পুনরায় চালু করা হয়েছে। আজ থেকে দিল্লিতেও শুরু হচ্ছে নৈশ কার্ফুু।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

17 − 4 =