ধোনির মহানুভবতা কোনদিন ভুলবেন না, ইউটিউবে এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন গ্যারি কারস্টেন

This News is Presented by Shyam Sundar Jewellers

শান্তি রায়চৌধুরী : ২০০৭ সালে কোচের দায়িত্ব নিয়ে ভারতীয় দলের খোলনলচেই পাল্টে দিয়েছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার গ্যারি কারস্টেন।অধিনায়ক ধোনির সঙ্গে তাঁর যুগলবন্দীও সে তো এক দারুণ ইতিহাস। দীর্ঘ ১৫ বছর পর এই সেদিন ইউটিউবে এক সাক্ষাৎকারে কারস্টেন তুলে ধরেন ধোনির সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক। দুজনের সম্পর্ক নাকি এতটাই ভালো ছিল যে একবার কারস্টেনকে আমন্ত্রণ না দেওয়ায় একটি অনুষ্ঠানে ভারতীয় ক্রিকেট দলের কাউকেই যেতে দেননি ধোনি। কারস্টেন বলেন, ধোনির সেই ব্যবহার ছিল কোচের প্রতি সম্মান ও শ্রদ্ধাবোধের অনন্য এক নজির।

সাক্ষাৎকারে সেই ঘটনাটি কারস্টেন বলতে গিয়ে বেশ আপ্লুতই, ‘একবার বেঙ্গালুরুর একটি বিমান প্রশিক্ষণ স্কুলে গোটা ভারতীয় ক্রিকেট দলকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। সেটি ছিল ২০১১ ওয়ানডে বিশ্বকাপের ঠিক আগে। কিন্তু বিদেশি নাগরিক হওয়ায় সেই স্কুলের অনুষ্ঠানে নিমন্ত্রণ জানানো হয়নি আমাকে। কারণ, স্কুলটি ছিল একটি সেনানিবাস এলাকায়। এই দলে ছিলেন প্যাডি আপটন ও এরিক সিমন্সও। ধোনি এ ঘটনা জানতে পারে অনুষ্ঠানের দিন, এতে বেশ বিব্রত হয় সে। পরে সিদ্ধান্ত নেয়, যদি কোচরা অনুষ্ঠানে যেতে না পারে, তাহলে দলের কারোরই যাওয়ার দরকার নেই।’

This news is sponsored by STP Tax Consultant

প্যাডি ছিলেন ভারতীয় দলের কৌশলগত পরিকল্পনা ও মানসিক শক্তি সাক্ষাৎকারে সেই ঘটনাটি কারস্টেন বলতে গিয়ে বেশ আপ্লুতই, ‘একবার বেঙ্গালুরুর একটি বিমান প্রশিক্ষণ স্কুলে গোটা ভারতীয় ক্রিকেট দলকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। সেটি ছিল ২০১১ ওয়ানডে বিশ্বকাপের ঠিক আগে। কিন্তু বিদেশি নাগরিক হওয়ায় সেই স্কুলের অনুষ্ঠানে নিমন্ত্রণ জানানো হয়নি আমাকে। কারণ, স্কুলটি ছিল একটি সেনানিবাস এলাকায়। এই দলে ছিলেন প্যাডি আপটন ও এরিক সিমন্সও। ধোনি এ ঘটনা জানতে পারে অনুষ্ঠানের দিন, এতে বেশ বিব্রত হয় সে। পরে সিদ্ধান্ত নেয়, যদি কোচরা অনুষ্ঠানে যেতে না পারে, তাহলে দলের কারোরই যাওয়ার দরকার নেই।’ প্যাডি ছিলেন ভারতীয় দলের কৌশলগত পরিকল্পনা ও মানসিক শক্তি বৃদ্ধির কোচ, আর সিমন্স দলের বোলিং পরামর্শক।

কারস্টেন বলেন, ‘আমি সে ঘটনা কোনো দিন ভুলতে পারব না। ধোনির সাফ কথা ছিল, বিদেশি কোচরাও দলের সদস্য। তাঁরা যেতে না পারলে আমরাও যাব না। একজন খেলোয়াড়ের মন কতটা সংবেদনশীল হলে সে এমন সিদ্ধান্ত নিতে পারে। ওই সিদ্ধান্তটি নেওয়া ধোনির জন্য খুবই কঠিন একটা ব্যাপার ছিল।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

twelve − 1 =