গঙ্গাসাগর 2022 : পূণ্য স্নানের মধ্যে দিয়ে পালন করা হল মকর সংক্রান্তি

This News is Presented by Shyam Sundar Jewellers

সুদীপ চন্দ এবং রাখী চন্দ, গঙ্গাসাগর : 

কপিল মুনির মন্দিরকে কেন্দ্র করে পূণ্য স্নানের মধ্যে দিয়ে পালন করা হল মকর সংক্রান্তি।

ছবি- সুদীপ চন্দ, নিউজ ইন্ডিয়া প্রেস
This news is sponsored by STP Tax Consultant

প্রতি বছরের মতো এবারেও আয়োজন করা তবে কোভিড-১৯ এর কারনে এবারের গঙ্গাসাগরের ছিল কিছু কড়াকড়ি। তবুও ভক্ত ও সাধুদের সমাগম ছিল দেখার মত।

ছবি- সুদীপ চন্দ, নিউজ ইন্ডিয়া প্রেস

রাজ্যের উচ্চ আদালতের আদেশ অনুযায়ী রাজ্য সরকার সমস্ত পদক্ষেপ গ্রহণ করেন।
এবারে কোভিড-১৯ এর জন্য অনেকেই আসতে পারেন নি, রাজ্য সরকার তাদের জন্য ওনলাইনে ই-স্নান ও ই-দর্শনের ব্যবস্থা করে দেন।

ছবি- সুদীপ চন্দ, নিউজ ইন্ডিয়া প্রেস

মহামান্য আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী দুটি ভ্যাকসিন ডোজের শংসাপত্র বা কোভিড পরিক্ষার নথিপত্র চেক করা এই প্রবল ভিড়ে কি করে সম্ভব ? বিধি লঙ্ঘনের চাপে দূরত্ব ও মাস্ক পরা শিকেয় তুলে শেষ পর্যন্ত বুস্টার ডোজের অপেক্ষায় থাকতে হবে কিনা , এ ব্যাপারে আমজনতা রীতিমত ধন্দ্বে ছিলেন। অবশেষে বিধি ভঙ্গের পুন্য তীর্থ হলেও ভক্তির ভাঁড়ার পূর্ণ করতে ভক্তপ্রাণ মানুষ গঙ্গায় ডুব দেয় ।

ছবি- সুদীপ চন্দ, নিউজ ইন্ডিয়া প্রেস

এটাই গঙ্গাসাগরের চিরকালের চিত্র যা এবারেও দৃশ্যমান হয়। দূর দূরান্ত থেকে দল বেঁধে সাগরে স্নানের উদ্দেশ্যে আসা ভক্তরা দলছুট হয়ে যাওয়ার ভয়ে বিভিন্ন ধরনের লম্বা লাঠিতে পতাকা উঁচু করে একই জায়গায় খোলা আকাশের নিচে কনকনে ঠান্ডায় বালির বিছানায় রাত কাটিয়ে ভোরের আলো ফোটার আগে থেকেই তারা নেমে পড়েন খালি গায়ে অবগাহনের উদ্দেশ্যে শিশু থেকে বৃদ্ধ বৃদ্ধা । একেই বলে ভক্তি , একেই বলে ভারত ।

ছবি- সুদীপ চন্দ, নিউজ ইন্ডিয়া প্রেস

ভক্তদের কাছে ড্রোনের মাধ্যমে গঙ্গাজল ছিটিয়ে স্নান করে পুণ্য হয় না । তাই তো ভক্তদের কাছে প্রশ্ন করলে সহজ উত্তর আসে, “গঙ্গাজল ছিটিয়ে স্নান করার জন্য কি সাগরে আসা ? নিজ চোখে দর্শণ করব , জলে নেমে স্নান করব, নিজের হাতে পুজো দেব মন্দিরে তবে তো সাগরে আসার খিদে মিটবে , তাহলে কিছু টা পূণ্য অর্জন হবে।কপিল মুনির প্রতি তাদের অগাধ বিশ্বাস , আর এই বিশ্বাসেই তাদের ভক্তি , আর এই ভক্তিই তাদের মানসিক শক্তি ।

ছবি- সুদীপ চন্দ, নিউজ ইন্ডিয়া প্রেস

গত ১৩ তারিখে মেলা অফিস প্রাঙ্গণে যে সাংবাদিক সম্মেলন হয় তাতে রাজ্য সরকারের বিভিন্ন দপ্তরের উপস্থিত মন্ত্রীরা যথাক্রমে পুলক রায় , বঙ্কিম হাজরা ,শশী পাঁজা , অরূপ বিশ্বাস সহ জেলা শাসক পি. উলগানাথন জানান , আদালতের সমস্ত নির্দেশ মেনেই মেলা পরিচালনার কাজ কঠোর ভাবে পালন করার চেষ্টা হচ্ছে ।

ছবি- সুদীপ চন্দ, নিউজ ইন্ডিয়া প্রেস

মানুষকে সতর্ক করা হচ্ছে যথা সম্ভব । সাংবাদিক সম্মেলনের মঞ্চ থেকে মন্ত্রী মারফৎ আরও জানা যায় ১১ নভেম্বর থেকে ৬ জানুয়ারী পর্যন্ত ৮ লক্ষের উপর পূন্যার্থী এসেছেন , ই- দর্শণ করেছেন প্রায় এক কোটি মানুষ , ই – স্নান করেছেন ১০৭৪২০ জন , ই- পুজো দিয়েছেন ২১,৫৬১ জন , এটি কোলকাতার বাবুঘাট থেকে কাকদ্বীপ লট-৮ ও নামখানা এবং সাগর মেলা প্রাঙ্গণ পর্যন্ত ১৩ টি প্রবেশ দ্বারে করোনা টেষ্টে মাত্র ০.৬৩ শতাংশ পজিটিভ পাওয়া গেছে ।যাদের ধরা পড়েছে তাদের সেফ হোম ও কোরেন্টাইন সেন্টারে পাঠানো হয়েছে । এদিন একটি মিউজিয়াম, মেগা কন্ট্রোল রুম ও মিডিয়া সেন্টারের উদ্বোধন হয় । ধ্যানকেন্দ্র আগেই উদ্বোধন হয়ে গিয়েছে ।

ছবি- সুদীপ চন্দ, নিউজ ইন্ডিয়া প্রেস

গতকাল মেলায় উপস্থিত হন বি জে পি নেত্রী উমা ভারতী। তিনি গঙ্গস্নান করেন ও মেলার জন্য মূখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রশংসা করেন।

ছবি- সুদীপ চন্দ , নিউজ ইন্ডিয়া প্রেস

গতকাল সাগর তটে আয়োজন করা হয় সাগর আরতি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

5 × two =