MLA-দের আর কথা বলতে দেব না’, বিধায়কের প্রস্তাব শুনে ধমক মমতার

This News is Presented by Shyam Sundar Jewellers

কর্ণজোড়ায় দুই দিনাজপুরের প্রশাসনিক বৈঠকে পৃথক জেলার দাবি তুলে বিপাকে বিধায়ক আবদুল করিম চৌধুরী। “এসব চিপ কথা এখানে বলবেন না… এর পর বলবেন ঘরের মধ্যেও একটা জেলা চাই”। প্রশাসনিক বৈঠকে এভাবেই কড়া ধমক দিয়ে ইসলামপুরের বিধায়ক করিম চৌধুরীকে বসিয়ে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ক্ষুব্ধ মমতা আরও বলেন, এরকম করলে এমএলএদের আর বলতে দেব না। এমএলএরা যদি এরকম চিপ কথা বলে তাহলে তাদের বলতে এলাউ করব না। আই অ্যাম সরি।

বিধায়কদের খবরাখবর নেওয়ার সময় মাইক হাতে বলতে ওঠেন ইসলামপুরের তৃণমূল বিধায়ক করিম চৌধুরী। বিধানসভা ভোটের আগে দলকে অস্বস্তিতে ফেলে করিম এদিন বলতে উঠলেও তাঁর কথা প্রথমে বুঝতে পারেননি মমতা। তখন মুখ্যমন্ত্রী তাঁকে ছোট করে বক্তব্য রাখতে বলেন। জানান অন্যদেরও সময় দিতে হবে। এদিকে এক মিনিট সময় চেয়ে তৃণমূল বিধায়ক তখন কাটিয়ে দিয়েছেন আরও কয়েক সেকেন্ড। এর পর কার্যত অসন্তোষের সুরে মমতাকে বলতে শোনা যায়, “আরে আপনার কী বলার আছে সেটা বলুন না! কী চাই আপনার?”ইসলামপুরের বিধায়ক বলেন, “ইসলামপুরপকে একটা আলাদা জেলা করে দেওয়া হোক”। আর তা শোনা মাত্রই ঝাঁঝিয়ে ওঠেন মমতা। তিনি বলেন, “এসব চিপ কথা এখানে বলবেন না। কোথায় কী বলতে হয় জানুন। এর পর তো বলবেন ঘরের মধ্য়ে একটা জেলা চাই!”
মুখ্যমন্ত্রীর কথায়, একটা জেলা করতে অনেক কাজ করতে হয়। তাছাড়া রায়গঞ্জ থেকে ইসলামপুরের দূরত্ব তো খুব বেশি নয়। এর আগে সুন্দরবনকে পৃথক করার দাবিও উঠেছিল। সেই প্রসঙ্গ টেনে মুখ্যমন্ত্রী বিধায়ককে বলেন, “দেখেছেন, সুন্দরবন আর মুর্শিদাবাদ কত বড় জেলা? ভোটে জিতে গিয়েছেন। এখন ভাল করে মানুষের জন্য কাজ করুন। ওসব হবে না এখন।”

This news is sponsored by STP Tax Consultant

বিধায়কদের উদ্দেশে বেশ কড়া সুরেই মমতা বলেন, “তাহলে কিন্তু আমি বিধায়কদের বলতে দেব না। তাঁরা যদি মনে করেন, নিজেদের মতো চিপ কথা বলবেন, তাহলে বিধায়কদের আমি কথা বলার অনুমতি দেব না। (ইসলামপুর) ওইটুকু জেলা। এবার বলবে আমার ঘরের মধ্যে জেলা করে দিন।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

15 + two =