বিশ্বের সবচেয়ে দূষিত ১০ শহরের মধ্যে ভারতেরই তিন, কলকাতা আছে চতুর্থ স্থানে

This News is Presented by Shyam Sundar Jewellers

শান্তি রায়চৌধুরী : বায়ুর মান এবং দূষিত শহর চিহ্নিত করার জন্য সুইৎজারল্যান্ডের একটি সংস্থা সম্প্রতি বিশ্বের সবচেয়ে দূষিত ১০ শহরের কথা তুলে ধরেছে। জানলে অবাক হবেন এই দশের মধ্যে ভারতেরই তিন শহর রয়েছে!আইকিউএয়ার নামে সুইস সংস্থাটি রাষ্ট্রপুঞ্জের দূষণ সংক্রান্ত প্রোগ্রামের তথ্যপ্রযুক্তি সহায়ক। সুইস সংস্থার দেওয়া তালিকায় একেবারে প্রথমেই রয়েছে দিল্লির নাম। নভেম্বরের শুরু থেকে বিষাক্ত থেকে বিষাক্ততর হচ্ছে দিল্লির বাতাস। গত ২৪ ঘণ্টায় দিল্লির বায়ু মান সূচক আরও কিছুটা বেড়ে শনিবার সকাল নাগাদ দাঁড়ায় ৫৫৬। শীঘ্রই পরিবহণ ৩০ শতাংশ কমিয়ে আনার নির্দেশিকা জারি করেছে কেন্দ্রীয় দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদ। প্রতি বছরই দীপাবলির পর এমন পরিস্থিতি তৈরি হয় দিল্লিতে। বাজি পোড়ানোর পাশাপাশি পড়শি রাজ্যের কৃষি জমিতে ফসলের গোড়া পোড়ানো এর অন্যতম কারণ।

বিশ্বের দ্বিতীয় দূষিত শহর হিসাবে পাকিস্তানের লাহৌরের নাম উঠে এসেছে। সম্প্রতি লাহৌরের হাইকোর্টেও দূষণ নিয়ন্ত্রণ নিয়ে একটি মামলা হয়েছে। মামলার শুনানিতে বিচারপতি স্পষ্ট জানিয়েছেন, দূষণ নিয়ন্ত্রণের কোনও ব্যবস্থাই নেয়নি সেখানকার প্রশাসনিক কর্তারা। তৃতীয় দূষিত শহর বুলগেরিয়ার সোফিয়া। বায়ু মান সূচক ১৭৮। এটি ইউরোপের সবচেয়ে দূষিত শহর। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু)-র সমীক্ষা অনুযায়ী, প্রতি বছর বুলগেরিয়ার ন’হাজার মানুষ বায়ুদূষণজনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান।

This news is sponsored by STP Tax Consultant

চতুর্থ দূষিত শহর কলকাতা। কলকাতার পরিস্থিতিও ভয়ানক। এই শহরের বায়ু মান সূচক ১৭৭। অত্যধিক কলকারখানা এবং যানবাহনই এর কারণ বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। পঞ্চম স্থানে রয়েছে ক্রোয়েশিয়ার রাজধানী জাগ্রেব। এর অবস্থা শীতকালে ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠে। ওই সময় ধোঁয়াশায় ঢেকে যায় পুরো শহর। শ্বাস নেওয়াও সমস্যা হয় বাসিন্দাদের। পঞ্চম দূষিত এই শহরের বায়ু মান সূচক ১৭৩।

ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে ভারতের আর এক শহর মুম্বই। কলকাতার থেকে দূষণের নিরিখে একটু পিছিয়েই রয়েছে মুম্বই। এর বায়ু মান সূচক ১৬৯। সপ্তম স্থানে রয়েছে সার্বিয়ার রাজধানী বেলগ্রেড, ইউরোপের আদি শহর। তাপবিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র এবং বিভিন্ন খনি এই শহরের দূষণের মূল কারণ। এ ছাড়া কারখানা এবং যানবাহনের ধোঁয়া তো রয়েছেই। সমীক্ষা অনুযায়ী, এর বায়ু মান সূচক ১৬৫।

অষ্টম স্থানে রয়েছে চিনের চেঙ্গদু। এর বায়ু মান সূচক ১৬৫। কারখানা এবং অত্যধিক যানবাহন নিয়ন্ত্রণ না করলে এই শহরের পরিস্থিতি আগামী দিনে আরও ভয়াবহ হয়ে উঠতে পারে বলেও রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে।

কারখানা থেকে বেরনো ধোঁয়া, যানবাহন এবং গৃহস্থালির ধোঁয়ার কারণে দূষণের চাদরে ঢেকে গিয়েছে উত্তর ম্যাসিডোনিয়ার শহর স্কপজে। এই শহরের স্থান নবম। এর বায়ু মান সূচক ১৬৪। বিশেষজ্ঞদের মতে, বায়ুদূষণের জন্য প্রত্যক্ষ ভাবে প্রতি বছর প্রায় আড়াই হাজার মানুষের মৃত্যু ঘটে এখানে। পোল্যান্ডের ক্রাকো বিশ্বের দশম দূষিত শহর। সুইস সংস্থার সমীক্ষা অনুযায়ী, এর বায়ু মান সূচক ১৬০।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

20 − 9 =