মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে প্রধানমন্ত্রী দেখতে চান কপিল মুনি আশ্রমের মোহন্ত

This News is Presented by Shyam Sundar Jewellers

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে প্রধানমন্ত্রী দেখতে চান কপিল মুনি আশ্রমের মোহন্ত। তিনি যাঁকে আগামী দিনের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে তুলে ধরছেন, সেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় চান জাতীয় মেলা হোক গঙ্গাসাগর। মুখ্যমন্ত্রী আপাতত তিনদিনের গঙ্গাসাগর (Gangasagar) সফরে। মঙ্গলবার সেখানে পৌঁছে কপিলমুনির আশ্রমে পুজো দিয়েছেন। আর তারপরই তাঁকে পাশে নিয়ে কার্যত ভবিষ্যৎবাণী করলেন আশ্রমের প্রধান জ্ঞানদাস মহান্ত। বললেন, ”প্রধানমন্ত্রী হওয়া থেকে মমতাকে কেউ রুখতে পারবে না। তাঁকেই প্রধানমন্ত্রী দেখতে চাই আমরা।”
মুখ্যমন্ত্রী থেকে প্রধানমন্ত্রী পদে উত্তরণের লক্ষ্যে এগোচ্ছে তৃণমূলও (TMC)। জাতীয় স্তরে সংগঠন বৃদ্ধিতে জোর দেওয়া হচ্ছে। সেইমতো বদলাচ্ছে কর্মসূচির ধরনও। নানা রাজ্য়ে সংগঠনের বিস্তার ঘটানোর কাজ চলছে পুরোদমে। এই পরিস্থিতিতে কপিলমুনির আশ্রমের মহান্তর কথা বিশেষভাবে তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছে বাংলার শাসকদল।

মঙ্গলবার গঙ্গাসাগরে সফরে গিয়ে মেলার প্রস্তুতি খতিয়ে দেখেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি খতিয়ে দেখেন সমস্ত ব্যবস্থা। তারপর তিনি কপিল মুনির আশ্রমে গিয়ে পুজো দেন। তারপরই মমতা বন্দনায় মুখরিত হন কপিল মুনি আশ্রমের মোহন্ত। তিনি বলেন গঙ্গাসাগরকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজের হাতে সাজিয়েছেন। পশ্চিমবঙ্গকে নিজের হাতে সাজিয়েছেন। এমনই নেত্রী দরকার দেশকে সাজাতে।

This news is sponsored by STP Tax Consultant

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এরপর গঙ্গাসাগরকে জাতীয় মেলা ঘোষণার দাবি তোলেন। এই মেলা কুম্ভ মেলার চেয়ে কোনও কম পবিত্র নয়। কথায় বলে – সব তীর্থ বারবার/ গঙ্গাসাগর একবার। তিনি বলেন, বহুবার কেন্দ্রীয় সরকারকে বলা হয়েছে, চিঠি করা হয়েছে যে, গঙ্গাসাসাগরকে জাতীয় মেলা করা হোক। কিন্তু গঙ্গাসাগর বরাবরই দুয়োরানি হয়ে রয়ে গিয়েছে। সুয়োরানি কুম্ভমেলার জন্য সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয় কেন্দ্র। কিন্তু গঙ্গাসাগরের জন্য কেন্দ্র কোনও সহায়তা করেনি। মেলায় যাতায়াতের জন্য একটি ব্রিজ দরকার। তা এখনও তৈরি না হওয়ায় মানুষজনের সমস্যা নিয়েও এদিন কেন্দ্রকে একহাত নিলেন তিনি।  বললেন, ”এই ব্রিজ করে দেওয়ার জন্যও বারবার কেন্দ্রকে বলা হয়েছে। কিন্তু তাতেও আমরা সাড়া পাইনি। আমাদের কাজ আমরাই করব। আমাদের টাকাপয়সা হলে ব্রিজটা বানিয়ে দেব।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

4 × four =