মেয়ে আমাকে পাত্তাই দেয় না, দাদাগিরি অনুষ্ঠানে অকপট সৌরভ

ছবি-রুবী সরকার
This News is Presented by Shyam Sundar Jewellers

শান্তি রায়চৌধুরী:  মা, বউয়ের চেয়েও মেয়েকে এগিয়ে রাখলেন সৌরভ, কিন্তু আফসোস সানা নাকি পাত্তাই দেয় না বাবাকে! একটা সময় ব্যাট হাতে তিনি দাপিয়ে বেরিয়েছেন ২২ গজ। এখন ভারতীয় ক্রিকেটের কড়া প্রশাসক। তবে ‘দাদাগিরি’র মঞ্চে বরাবরই দেখা মেলে এক অন্য সৌরভের। যিনি ভারতীয় ক্রিকেটের সুপারস্টার হওয়ার পাশাপাশি একজন ফ্যামিলি ম্যানও বটে।

 

This news is sponsored by STP Tax Consultant

 

পরিবারের নানান গল্প আড্ডার ফাঁকে ভাগ করে নেন মহারাজ। আর সেই জন্যই ‘দাদাগিরি’ সবার এতো ফেবারিট। শনিবার ‘দাদাগিরি’র মঞ্চে হাজির হয়েছিলেন ‘টনিক’ দেব। টিম ‘টনিক’-এর তরফে যোগ দিয়েছিলেন পরাণ বন্দ্যোপাধ্যায়, শকুন্তলা বড়ুয়া, তুলিকা বসু, নীল মুখোপাধ্যায়রা।

গল্পে, আড্ডায় জমে উঠেছিল খেলা। এদিন দেব আচমকাই সৌরভের সামনে প্রশ্ন রাখেন, তার জীবনের টনিক কী? স্ট্রেট ব্যাটে খেলে দাদার জবাব, ‘একটা সময় আমার জীবনের টনিক ছিল ক্রিকেট। তবে এখন সেটা পালটে গেছে। এখন আমার জীবনের তিনটে টনিক। আমার মা, স্ত্রী, মেয়ে। এরপর মধ্যে তৃতীয়জন সবার আগে- আমার মেয়ে। যদিও মেয়ে পাত্তা দেয় না। এখন ২০ হয়ে গেছে তো।

উচ্চশিক্ষার জন্য আপাতত লন্ডনে আছেন সানা। গ্লোবাল বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ছেন সৌরভ-ডোনার একমাত্র কন্যা। সানাকে ভর্তি করতে সৌরভ ও ডোনা দু’জনেই গিয়েছিলেন লন্ডনে। মেয়ে আর বউয়ের সঙ্গে সেই সময় একাধিক ছবিও সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করে নিয়েছিলেন সৌরভ। আপাতত মেয়ের সঙ্গে ডোনা লন্ডনেরই বাসিন্দা। বিদেশ বিভুঁইয়ে মেয়েকে একা ছাড়তে মন চায়নি বাবার, তাই ডোনাও এখন সে দেশে, দাদাগিরির মঞ্চেই একথা জানিয়েছিলেন সৌরভ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

1 − 1 =