শ্রীনগরকে ইউনেস্কোর ‘ক্রিয়েটিভ সিটি’র স্বীকৃতি

ছবি-সংগৃহীত
This News is Presented by Shyam Sundar Jewellers

শান্তি রায়চৌধুরী: শ্রীনগরকে কারু ও লোকশিল্পের জন্য ‘ক্রিয়েটিভ সিটি’-র স্বীকৃতি দিয়েছে ইউনেস্কো। এ খবরে শহরটির বাসিন্দারের পাশাপাশি স্বয়ং ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও আনন্দ প্রকাশ করেছেন।

 

This news is sponsored by STP Tax Consultant

 

থরে থরে সাজানো কারুশিল্পীদের তৈরি নানা সামগ্রী। দেয়ালে দেয়ালে টাঙানো পশমি চাদর। এসবের পরতে পরতে লোকজ ঐতিহ্যের ছাপ। এটি কাশ্মীরে অবস্থিত শ্রীনগর শহরের ক্রাফট মিউজিয়ামের ভেতরের দৃশ্য। লোক ও কারুশিল্পের জন্য যে শহরটি আগে থেকেই সুপরিচিত।

ছবি-সংগৃহীত

এই শ্রীনগরকে ‘ক্রিয়েটিভ সিটি’ হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে জাতিসংঘের শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি সংস্থা- ইউনেস্কো। ইউনেস্কোর’নেটওয়ার্ক অব ক্রিয়েটিভ সিটিস’-ইউসিসিএন তালিকায় যুক্ত করা হয়েছে শহরটির নাম। ভারতের মুম্বাই, হায়দারাবাদ, জয়পুরের পর এ তালিকায় যুক্ত হলো শ্রীনগর। কাশ্মীরে নানা ধরনের শিল্পপণ্য তৈরি হয়ে থাকে। পর্যটকদের কাছে অঞ্চলটির পশমি চাদর, কার্পেট, পাটি, পিরান, হাতের কাজ করা শীতের পোশাক অত্যন্ত জনপ্রিয়। এছাড়া কাঠের ওপর খোদাই করা শিল্পকর্ম, কাগজ দিয়ে তৈরি ক্রাফট ও বেশ কিছু পারফরমেন্স আর্টও সুপরিচিত।

কারু ও লোকশিল্পের জন্য ইউনেস্কোর স্বীকৃতি পাওয়ায় উচ্ছ্বসিত শ্রীনগরের বাসিন্দারা। এ খবরে আনন্দ প্রকাশ করেছেন স্বয়ং ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও। এক টুইট বার্তায় তিনি কাশ্মীরের জনগণকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

মোদি বলেন, সৌন্দর্যে ভরা কাশ্মীরের শ্রীনগর কারু ও লোক শিল্পের জন্য ইউনেস্কো ক্রিয়েটিভ সিটিস নেটওয়ার্কের তালিকায় যুক্ত হয়েছে। এজন্য সেখানকার মানুষদের আমি অভিনন্দন জানাই।
ইউনেস্কো কারুশিল্প, লোকশিল্প , মিডিয়া আর্টস, ফিল্ম ডিজাইন, সাহিত্য, সংগীত ও শিল্পচর্চা এই সাতটি বিষয় বিবেচনা করে কোনো শহরকে ‘ক্রিয়েটিভ সিটি’ হিসেবে তালিকাভূক্ত করে থাকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

20 + eight =