গঙ্গাসাগরের পুণ্যার্থীদের জন্য ৫ লক্ষ টাকার বিমা, ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

This News is Presented by Shyam Sundar Jewellers

কলকাতা হাই কোর্টের নির্দেশ মেনে তবেই গঙ্গাসাগরে যান, পুণ্যস্নানের আগেই বাবুঘাটে গিয়ে বার্তা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের।গঙ্গাসাগরের পুণ্যার্থীদের জন্য রাজ্য সরকার  ৫ লক্ষ টাকার বিমার ব্যবস্থা করেছে। ’ ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী। এদিকে, এদিন বাবুঘাটের আগে সিমলা স্ট্রিটে বিবেকানন্দের বাসভবনেও যান তিনি। বুধবার তিনি পুণ্যার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন,  ‘কেউ এমন কিছু করবেন না, যাতে পরিস্থিতি খারাপ হয়ে যায়। বেশি হই হুল্লোর করবেন না, নিজেদের স্বাস্থ্য ঠিক রাখুন, সুস্থ রাখুন। মাস্ক পড়ুন। এদিক সেদিক থুতু ফেলবেন না। ডাবল মাস্ক পড়ুন। তাই পরিস্থিতি খুব কঠিন, সবাই কোর্টের নির্দেশ মেনে চলুন।

গঙ্গাসাগর মেলা কমিটিকে উদ্দেশ্য করে বুধবার মুখ্যমন্ত্রী (CM Mamata Banerjee) বলেন, “বেশি লোক পাঠাবেন না। কলকাতা হাই কোর্টের কড়াকড়ি আছে। আদালতের নির্দেশমতো চলতে হবে। যাঁরা গঙ্গাসাগরে যাচ্ছেন তাঁদের আরটি পিসিআর টেস্ট বাধ্যতামূলক। না হলে যাওয়া যাবে না। কোভিডবিধি মেনে চলুন। ডবল মাস্ক পরুন। স্যানিটাইজার ব্যবহার করুন।”

This news is sponsored by STP Tax Consultant

হাইকোর্ট মেলা নিয়ে যে নির্দেশ দিয়েছে, তা আমাদের মেনে চলতে হবে। এমনটাই বলেন মমতা। তিনি উল্লেখ করেন, বাইরে থেকে যারা আসছেন, তাঁদের ওপর নজর দিতে হবে। কেউ করোনা আক্রান্ত হলে, তাঁকে আলাদা করে রাখতে হবে, প্রয়োজনে পুলিশের সাহায্য নিতে হবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রী পূণ্যার্থীদের বুঝিয়ে বলেন, একটা গাড়িতে একজন করোনা আক্রান্ত হলে, বাকি সবাই আক্রান্ত হয়ে যাবেন, তাই তাঁদের নিজেদেরই এ বিষয়ে সচেতন হতে হবে।

তিনি জানিয়েছেন, প্রত্যেকবার ভারত সেবাশ্রমের সদস্যরা অনেক কাজ করেন। কিন্তু এবার  ভারত সেবাশ্রমের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, সদস্যদের অনেকেই করোনা আক্রান্ত অথবা তাঁদের পরিবারের কেউ না কেউ আক্রান্ত, তাই তাঁদের পক্ষ থেকে ভলান্টিয়ার পাঠানো সম্ভব হয়নি। মমতা আরও উল্লেখ করেন, পুলিশ আধিকারিকেরাও অনেকেই আক্রান্ত। আধিকারিকেরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে মেলার কাজ করছে বলেও জানান তিনি। প্রশাসন, পুলিশ, স্বাস্থ্যকর্মীরা করোনা মোকাবিলায় জীবন দিয়ে কাজ করছেন। এটা হইহুল্লোড় করার সময় নয়। যাঁদের উপসর্গ রয়েছে তাঁরা দয়া করে গঙ্গাসাগরে যাবেন না। বিহার, উত্তরপ্রদেশ-সহ একাধিক রাজ্যের মানুষ গঙ্গাসাগরে যাচ্ছেন। তাই সংক্রমিত হওয়ার আশঙ্কাও বেশি। গঙ্গাসাগর মেলা করা মুখের কথা নয়। যথেষ্ট কঠিন।”
সকলকে শান্তি বজায় রাখার আরজিও জানান মুখ্যমন্ত্রী। উল্লেখ্য, নানা টানাপোড়েনের পর শর্তসাপেক্ষে গঙ্গাসাগর মেলার অনুমতি দিয়েছে কলকাতা হাই কোর্ট (Calcutta High Court)। তবে হাই কোর্টের সিদ্ধান্তে খুশি নয় চিকিৎসকমহল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

three × 4 =