কুম্ভমেলাকে কেন্দ্র টাকা দেয়, এখানে দেয় না,’ গঙ্গাসাগরে বলেন মমতা

This News is Presented by Shyam Sundar Jewellers

অভীক পুরকাইত:  গঙ্গাসাগর মেলায় এক পয়সাও কেন্দ্র দেয় না। মমতার ব্যানার্জি বলেন ‘কুম্ভমেলা যদি ওয়ান হয়, এটা টু পাওয়া উচিৎ। এটা কুম্ভের মেলা থেকে কোনও অংশে কম নয়।’ তাঁর দাবি, গঙ্গাসাগর মেলাকে জাতীয় মেলার তকমা দেওয়ার জন্য বহুবার কেন্দ্রকে চিঠি লিখেছেন মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু তার কোনও জবাবই আসেনি।মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এদিন অভিযোগ করেন কুম্ভমেলার জন্য কেন্দ্রীয় সরকার সবরকম সহযোগিতা করলেও গঙ্গাসাগর মেলা নিয়ে তাদের কোনওরকম সহযোগিতা নেই। মমতা বলেন, “কুম্ভমেলায় সব টাকা ভারত সরকার দেয়। কিন্তু এখানে এক পয়সাও দেয় না। মুখ্যমন্ত্রী বলেন “কুম্ভমেলা ওদের সুয়োরানি, গঙ্গাসাগর কি দুয়োরানি ?”

গঙ্গাসাগরে মুখ্যমন্ত্রী বলেন “আমি অনেকবার চিঠি দিয়েছি। প্রধানমন্ত্রীকে অনেকবার চিঠি লিখেছি গঙ্গাসাগরকে জাতীয় মেলা ঘোষণা করা উচিৎ। কুম্ভ যদি ওয়ান হয়, এটা টু পাওয়া উচিৎ। আমি মনে করি কুম্ভ থেকে এটা কিছুতেই কম নয়। কুম্ভ মেলা রোড কানেকটেড, রেল কানেকটেড। কিন্তু এটা জল পেরিয়ে আসতে হয়। সেই জন্যই সবাই বলে সব তীর্থ বার বার গঙ্গা সাগর একবার। কিন্তু আজ একবার যাঁরা গঙ্গাসাগরে এসেছেন তারা বারবার আসেন। আগে গঙ্গাসাগরে থাকার জায়গা পর্যন্ত ছিল না।তৃণমূল কংগ্রেস সরকারে আসার পর এখন সব ব্যবস্থা করা হয়েছে।

This news is sponsored by STP Tax Consultant

গঙ্গাসাগর মেলা নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে পক্ষপাতের অভিযোগ তুলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, বিশ্বের অন্যতম সেরা মেলা এই গঙ্গাসাগর মেলা। প্রতি বছর প্রায় ৩০ লক্ষ মানুষ এখানে আসেন। যতই প্রকৃতির দুর্যোগ আসুক না কেন, গঙ্গাসাগর কিন্তু ঘুরে দাঁড়ায়। মমতার কথায়, “যশের পর, অন্যান্য প্রাকৃতিক দুর্যোগের পর আমরা চটপট করে উন্নয়নের সব কাজ করে দিয়েছি। অন্যদিকে পুণ্যার্থীদের সুবিধার্থে কলকাতা থেকে অতিরিক্ত ৭০টি ট্রেন ও বাস চালানো হবে বলেও জানান তিনি।। তাছাড়া কলকাতায় চালু থাকবে ২৪ ঘণ্টার কন্ট্রোল রুম।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

10 + 18 =