বিপদ বুঝে এর্মাজেন্সি ব্রেক কষেছিলেন, দুর্ঘটনার বিবরণ দিলেন বিকানের-গুয়াহাটি এক্সপ্রেসের চালক

This News is Presented by Shyam Sundar Jewellers

বিপদ বুঝে এর্মাজেন্সি ব্রেক কষেছিলেন তিনি। দুর্ঘটনার সময়ের বিবরণ দিলেন বিকানের-গুয়াহাটি এক্সপ্রেসের  লোকো পাইলট। কেন ত্রুটি ইঞ্জিনে, প্রাথমিকভাবে রেলের আধিকারিকদের অনুমান, ট্রাকশন মোটরস খুলে পড়ে যায়। এর কাজ হচ্ছে হুইল-অ্যাক্সেল পরিচালনা করা। সেটা করতে গিয়েই বাধা আসে। ভেঙে পড়েছে এটা বুঝতে পারেন লোকো পাইলট ও সহকারী লোকো পাইলট।  এদিকে, ট্রেনটির চালক ও সহকারী চালক জানিয়েছেন, সমস্ত সিগন্যালই সবুজ ছিল। ট্রেনটি  ঘণ্টায় ৪০ কিমি বেগে নয়, চলছিল ৯৫ থেকে ১০০ কিমি গতিতে । তাঁরা আচমকা প্রচণ্ড ঝাঁকুনি অনুভব করেন। তাঁরা এমার্জেন্সি ব্রেক কষে ট্রেনটি থামান।

আচমকাই একটা ভীষণ ঝাঁকুনি অনুভব করি। তারপরই এর্মাজেন্সি ব্রেক কষি। পিছনে কী হচ্ছে, আমার পক্ষে জানাটা সম্ভব ছিল না। যখন দেখি, তখন পিছনের ৬ চাকা লাইনচ্যুত হয়েছিল। কারণ আমি গাড়ি চালাচ্ছিলাম। ট্র্যাকশন মোটর খোলা ছিল কিনা, সেটা জানা আমার পক্ষে কোনওপক্ষেই সম্ভব নয়।”

This news is sponsored by STP Tax Consultant

এদিন ডিজি আরপিএফ লোকো পাইলট ও সহকারী লোকো পাইলটকে  ডেকে পাঠিয়েছিলেন। কমিশনার ওফ রেলওয়ে সেফটি ইতিমধ্যেই তাঁদের সঙ্গে কথা বলেছেন বলে জানা গেছে। এদিন দুর্ঘটনাস্থল খতিয়ে দেখেন  রেলমন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব। তিনি জানান,  ট্রেনের ইঞ্জিনে যান্ত্রিক ত্রুটিই দুর্ঘটনার কারণ। প্রাথমিক তদন্তে এমনটাই অনুমান। রেলমন্ত্রী দাবি করেন, যেহেতু দুর্ঘটনার কারণ চিহ্নিত করা সম্ভব হয়েছে, তাই তদন্ত রিপোর্ট আসতেও খুব বেশি সময় লাগবে না৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

eighteen + 9 =