১৫-১৮ বছর বয়সীদের টিকাকরণ; ৬০ বছর বয়সীদের প্রিকশন ডোজ, ঘোষণা মোদীর

This News is Presented by Shyam Sundar Jewellers

১৫ থেকে ১৮ বয়সিদের জন্য ভারতে ভ্যাকসিন শুরু হতে চলেছে। ২০২২ সালের ৩ জানুয়ারি থেকে এই টিকাকরণ শুরু হবে। স্বাস্থ্যকর্মী এবং করোনাযোদ্ধাদের প্রিকশন ডোজ দেওয়া হবে, জাতির উদ্দেশে ভাষণে ঘোষণা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর। জানুয়ারি মাসের ১০ তারিখ থেকে করোনা টিকার বুস্টার ডোজ পাবেন ষাটোর্ধ্ব মানুষেরাও। তবে সেক্ষেত্রে লাগবে চিকিৎসকের পরামর্শ। এ ছাড়া করোনার ন্যাসাল টিকা ও ডিএনএ টিকা নিয়েও শনিবার তথ্য দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

বিশ্বজুড়েই দাপট দেখাচ্ছে ওমিক্রণ (Omicron)। করোনার নয়া প্রজাতি ঢুকে পড়েছে ভারতেও। আক্রান্তের সংখ্যা ইতিমধ্যেই সাড়ে তিনশো পেরিয়ে গিয়েছে। পরিস্থিতি এতটাই উদ্বেগজনক যে, উত্তরপ্রদেশের বিধানসভা নির্বাচন অন্ততপক্ষে এক থেকে দুই মাস পিছিয়ে দেওয়ার জন্য নির্বাচন কমিশনকে (Election Commission) অনুরোধ করেছে এলাহাবাদ হাইকোর্ট।
প্রধানমন্ত্রীর কথায়, “করোনা মহামারীর সঙ্গে লড়াইয়ের এখনও পর্যন্ত অভিজ্ঞতা বলছে, সব নিয়ম মেনে চলাই কোভিডের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের প্রধান হাতিয়ার। আরেকটা উপায় হল টিকাকরণ। আমাদের দেশও বহুদিন আগে থেকে ভ্যাকসিন তৈরির কাজ করেছে।”

This news is sponsored by STP Tax Consultant

মোদি এদিন মনে করিয়ে দিয়েছেন, ১১ মাস ধরে দেশে টিকাকরণ অভিযান চলছে। দেশের সব নাগরিকদের চেষ্টাতেই ১৪১ কোটি ডোজ ভ্যাকসিন দেওয়া গিয়েছে। ভারতের প্রাপ্তবয়স্কদের মধ্যে ৬১ শতাংশ মানুষ ভ্যাকসিনের দুটি ডোজই পেয়েছেন। প্রায় ৯০ শতাংশ মানুষ অন্তত একটি ডোজ পেয়েছেন। অনেক রাজ্য কঠিন পরিস্থিতির বিরুদ্ধে লড়াই করেও ১০০ শতাংশ ভ্যাকসিনেশন সম্পূর্ণ করেছে। আশ্বাস দেন, ‘এখন ওমিক্রন নিয়ে চর্চা চলছে। ভারত পরিস্থিতি অনুযায়ী বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নিয়েছে। খুব তাড়াতাড়ি ন্যাজাল ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। দেশবাসীকে সুরক্ষিত রাখতে আমরা কাজ করে চলেছি’।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

seventeen − 7 =